আমেরিকা

অনুষ্ঠিত হল বাইডেন ও ম্যাক্রোর ফোনালাপ

ইউরোপের প্রতিরক্ষাকে আর জোরদার করার ব্যাপারে ঐক্যমত প্রকাশ করেছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো ও আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। শুক্রবারে এক ফোনালাপে তাদের মাঝে এই নিয়ে কথা হয়।হোয়াইট হাউস কর্তৃক প্রকাশিত এক প্রেস বিবৃতিতে জানা যায় যে দুই নেতা ফোনালাপে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন। চলতি মাসের শেষেরদিকে ইতালিতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বৈঠকের প্রস্তুতির খাতিরে এই ফোনালাপটি সংগঠিত হয়।হোয়াইট হাউসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদার ও অভিন্ন স্বার্থ রক্ষার অনেকগুলো জায়গা রয়েছে।একই কথা ফ্রান্সের প্রেস বিবৃতিতেও বলা হয়।সাম্প্রতিককালে, অস্ট্রেলিয়াকে ঘিরে আমেরিকা ও ফ্রান্সের সর্ম্পকের অবনতি ঘটে৷ ২০১৬ সালে ফ্রান্সের সাথে পারমানবিক সাবমেরিন কেনার চুক্তি করে অস্ট্রেলিয়া। পরবর্তীতে, চলতি বছরে চীনকে আটকানোর জন্য অস্ট্রেলিয়ার সাথে প্রতিরক্ষা চুক্তিতে সই করে আমেরিকা ও ইংল্যান্ড। উক্ত চুক্তির অধীনে, অস্ট্রেলিয়াকে নৌযান ও নৌপ্রযুক্তি সরবরাহ করবে আমেরিকা।এর কারণে, অস্ট্রেলিয়া ফ্রান্সের সাথে করা চুক্তি বাতিল করে। এতে ফ্রান্স ক্ষুদ্ধ হয়ে আমেরিকা থেকে তাদের রাষ্ট্রদূতকে সরিয়ে ফেলে। ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যঁ-ইভেস লে ড্রিয়ান অভিযোগ করেন, ‘বাইডেন প্রশাসন পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের পথেই হাঁটছে। ট্রাম্পের মতো আচরণ করছেন জো বাইডেন।’ নিজের ইউরোপীয় মিত্রের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে বদ্ধপরিকর আমেরিকা। চলতি মাসের শুরুতে ফ্রান্স সফরে যান মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। সফরকালে তিনি ম্যাক্রোর সঙ্গেও বৈঠক করেন। আগামী মাসেত শুরুতে ফ্রান্স সফরে যাচ্ছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। আশা করা হচ্ছে, এর মাধ্যমে প্যারিস ও ওয়াশিংটনের মধ্যেকার টানাপোড়েন কিছুটা হলেও কমবে।

সংশ্লিষ্ঠ খবরগুলো

Back to top button