আমেরিকা

হাইতিতে অপহৃত মিশনারি দল: জনপ্রতি ১ মিলিয়ন ডলার মুক্তিপণ দাবি

হাইতিতে অপহরণের শিকার যুক্তরাষ্ট্রের মিশনারিদের মুক্তির জন্য জনপ্রতি ১ মিলিয়ন ডলার মুক্তিপণ দাবি করেছে অপহরণকারী দলটি।

গত শনিবার (১৬ অক্টোবর) পরিবারসহ ১৭ জনের এক মিশনারি দলকে হাইতির রাজধানী থেকে অপহরণ করে হাইতির সন্ত্রাসী গ্যাং। অপহরণের শিকার হওয়া ১৪ জন পূর্ণবয়স্ক ও তিনজন শিশু।

হাইতির এই গ্যাংটি অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের জন্য কুখ্যাত। এই গ্যাং এর নাম ৪০০ মাজোয়ো৷ এর আগে এপ্রিল মাসে ক্যাথোলিক পাদ্রীর একটি দলকে অপহরণ করে এই গ্যাং।

পরবর্তীতে পাদ্রীদের ওই দলটি মুক্তি পেলেও মুক্তিপণ আদায় করা হয়েছিল কী না, তা জানা যায়নি।

অপহৃত হওয়া ১৭ জনের মধ্যে ১৬ জনই মার্কিনী আর একজন কানাডার নাগরিক। অপহৃতদের মধ্যে পাঁচজন  পুরুষ, সাতজন নারী ও পাঁচটি শিশু রয়েছে৷ সবচেয়ে কম বয়েস্ক শিশুটির মাত্র ২ বছর।

ওহিও রাজ্যের একটি অলাভজনক মিশনারি সংস্থায় তারা কাজ করেন। সংস্থাটির নাম ক্রিশ্চিয়ান এইডস মিনিস্ট্রিস। এই সংস্থাটি হাইতির শিশুদের খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থানের মতো মৌলিক চাহিদা পূরণ করে থাকে।

স্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওই মিশনের সদস্যরা বাসে করে রাজধানী প্রিন্স অব পোর্টের এক এতিমখানা ছেড়ে অন্য জায়গায় যাচ্ছিলেন। পথে কয়েক সদস্যকে বিমানবন্দরে নামিয়ে দেওয়ার সময় অপহরণকারীরা  বাসে হানা দেয়। এরপর তাদের বাসের চালকে জিম্মি করে অন্যত্র নিয়ে যায়।

এরপর অপহৃতদের একজন বাসে বসে হোয়াটসঅ্যাপ একটি বার্তা পাঠায়। সেখানে বলা হয়, ‘আমাদের পুরো দলকে অপহরণ করা হয়েছে। আমাদের জন্য প্রার্থনা করুন। আমরা জানি না আমাদের কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে’।

এদিকে এই ঘটনার প্রেক্ষিতে হোয়াইট হাউজ সোমবার (১৮ অক্টোবর) জানায়, ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট এবং ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন( এফবিআই) অপহৃতদের উদ্ধারে কার্যক্রম শুরু করেছে।

ক্রিশ্চিয়ান এইড মিনিস্ট্রির সাবেক এক ফিল্ড ডিরেক্টর জানান ইতোমধ্যে মিশনারির দলটির সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ঠ খবরগুলো

Back to top button